বিজ্ঞপ্তি :

সাংবাদিক নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি 2023 :- বহির্বিশ্ব সহ বাংলাদেশের সকল বিভাগ, জেলা, উপজেলা এবং বিশ্ববিদ্যালয় (আসন শূন্য থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আবেদনের যোগ্যতা :- বয়স:- সর্বনিম্ন ২০ বছর হতে হবে। শিক্ষাগত যোগ্যতা:- আবেদনকারীকে সর্বনিন্ম এইচএসসি পাশ হতে হবে। কমপক্ষে ১ বছরে অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। (তবে বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধিদের ক্ষেত্রে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষার্থী হতে হবে অথবা কমপক্ষে ১ বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।) অতিরিক্ত যোগ্যতা:- স্মার্ট ফোন থাকতে হবে। নিজেদের প্রকাশিত নিউজ অবশ্যই নিজে ফেসবুকে শেয়ার করতে হবে একই সঙ্গে বিভিন্ন সামাজিক মাধ্যমে প্রচার করতে হবে। এছাড়াও প্রতিদিন অন্তত ০৩ টি নিউজ শেয়ার করতে হবে। (বাধ্যতামূলক) অবশ্যই অফিস থেকে দেয়া এ্যাসাইনমেন্ট সম্পন্ন করতে হবে। নিউজের ছবি এবং নিউজের সঙ্গে ভিডিও পাঠাতে হবে ( ছবি কপি করা যাবে না কপি করলে তা উল্লেখ করতে হবে)। বেতন ভাতা :- মাসিক বেতন ও বিজ্ঞাপনের কমিশন আলোচনা সাপেক্ষে। আবেদন করতে আপনাকে যা করতে হবে :- আমাদের ই-মেইলের ঠিকানায় ছবিসহ জীবন বৃত্তান্ত (Cv), সিভির সঙ্গে জাতীয় পরিচয়পত্র এর কপি, সর্ব্বোচ্চ শিক্ষাগত সনদ এর কপি, পাসপোর্ট সাইজের ছবি, অভিজ্ঞতা থাকলে প্রমাণ স্বরুপ তথ্য প্রেরণ করতে হবে । মনে রাখবেন :- সিভি অবশ্যই নিজের ব্যক্তিগত মেইল থেকে পাঠাতে হবে। কারণ যে মেইল থেকে সিভি পাঠাবেন অফিস থেকে সেই মেইলেই রিপ্লাই দেওয়া হবে। ই–মেইল পাঠাতে বিষয় বস্তু অর্থাৎ Subject–এ লিখতে হবে কোন জেলা/ উপজেলা/ ক্যাম্পাস প্রতিনিধি। আমাদের সাথে যোগাযোগের ঠিকানা :- Email:- bondhantv@gmail.com টেলিফোন:- +8809638788837, +8801911040586 (Whatsapp), সকাল ৯টা থেকে রাত ১১.৫৯ পর্যন্ত। আমাদের নিয়োগ পদ্ধতি :- প্রথমে আপনার কাগজ যাচাই বাছাই করা হবে। আপনি প্রাথমিক ভাবে চুড়ান্ত হলে সেটি সম্পাদকের কাছে প্রেরণ করা হবে। সর্বশেষ সম্পাদক কর্তৃক চুড়ান্ত হলে আপনার সাথে যোগাযোগ করা হবে মোবাইল এবং ইমেল এর মাধ্যমে। আপনাকে আমাদের ট্রেনিং এবং অবজারভেশন ফেসবুক গ্রুপে এড করা হবে। তারপর আপনাকে ৫ দিন নিউজ পাঠাতে বলা হবে। এর পর চুড়ান্ত নিয়োগের ১ মাসের মধ্যে আপনার কার্ড প্রেরণ করা হবে। নিউজ পাঠানোর মাধ্যম:- আমাদের মেইল আইডি, মেসেঞ্জার গ্রুপ, ইউজার আইডির মাধ্যমে পাঠাতে পারবেন। নিউজ অবশ্যই ইউনিকোড ফরমেটে পাঠাতে হবে। নিউজের সাথে ছবি থাকলে তা পাঠাতে হবে। নিউজের যদি কোন তথ্য প্রমাণ থাকে তবে তা প্রেরণ করতে হবে। বি:দ্র: সকল শর্ত পরিবর্তন, পরিমার্জন এবং বর্ধিত করনের অধিকার কর্তৃপক্ষের কাছে সংরক্ষিত। মন্তব্য: BondhanTv – বন্ধন টিভি আমাদের নিজস্ব আয়ে চ্যানেলটি পরিচালিত হয়। আমরা কোন গ্রুপ বা কোম্পানির অর্থ বা কোন স্পন্সরের অর্থদ্বারা পরিচালিত নয়।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ফের বাড়ল খাবারের দাম


বন্ধন টিভি ডেস্ক
প্রকাশের সময় : জানুয়ারি ১০, ২০২৪, ৪:০৯ অপরাহ্ণ
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ফের বাড়ল খাবারের দাম

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ফের বাড়ল খাবারের দাম।দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি ও খাবারের মান বৃদ্ধির লক্ষ্যে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৭টি আবাসিক হলের ডাইনিংয়ে খাবারের দাম বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত নিয়েছে হল প্রাধ্যক্ষ পরিষদ। এতে আগের চেয়ে দুপুর ও রাতের খাবারে মোট ১০ টাকা বৃদ্ধি করা হয়েছে।

আগামী ১৫ জানুয়ারি থেকে আবাসিক হলগুলোর ডাইনিংয়ে এ সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে। ইতিমধ্যে এ সিদ্ধান্তের নোটিশ বিভিন্ন হলে টাঙানো হয়েছে। এমন সিদ্ধান্তে শিক্ষার্থী ও ক্রিয়াশীল রাজনৈতিক সংগঠনের নেতারা ক্ষোভ প্রকাশ করেছে।

ক্ষোভ প্রকাশ করে তারা জানান, ‘পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের বেশির ভাগ শিক্ষার্থী নিম্নবিত্ত পরিবার থেকে উঠে আসা। তাদের কথা বিবেচনা না করে প্রতিনিয়ত খাবারের দাম বৃদ্ধি করা হচ্ছে। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয়ের সব কর্মকাণ্ড শিক্ষার্থীদের স্বার্থে হওয়া উচিত। তবে প্রশাসন বরাবরই শিক্ষার্থীদের ব্যাপারে উদাসীনতা দেখায়। খাবারের দাম বৃদ্ধি না করে বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্বিক বাজেট থেকে ভর্তুকি দিতে পারে প্রশাসন। এটা না করে শিক্ষার্থীদের ওপর চাপ প্রয়োগ করছে প্রশাসন।’

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের চলতি সময় দুপুরে ও রাতের খাবারের দাম ছিল ২৮ ও ২২ টাকা। তবে গত বছরের ১২ ডিসেম্বর প্রাধ্যক্ষ পরিষদের এক সভার ৪ নম্বর সিদ্ধান্তে খাবারের দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এরপর চলতি বছরের ৮ জানুয়ারি হলগুলোতে পাঠানো বিজ্ঞপ্তি থেকে জানা যায়, সকল হলে ডাইনিংয়ে দুপুরের খাবারের দাম ৩৫ টাকা এবং রাতের খাবার ২৫ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। আগামী ১৫ জানুয়ারি থেকে এ সিদ্ধান্ত কার্যকর করা হবে বলে বিজ্ঞতিতে উল্লেখ করা হয়। নতুন এ সিদ্ধান্তে দুই বেলা খাবারে মোট ১০ টাকা দাম বৃদ্ধি পেল।

প্রশাসনের এমন সিদ্ধান্ত শিক্ষার্থীদের জন্য মড়ার উপর খাড়ার ঘাঁ বলে মন্তব্য করেছেন বিশ্ববিদ্যালয় শাখা নাগরিক ছাত্র ঐক্যর সভাপতি ও কেন্দ্রীয় কমিটির সমন্বয়ক মেহেদী হাসান মুন্না।
তিনি বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের যাবতীয় আয়োজন শিক্ষার্থীদের জন্য। কিন্তু বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন বরাবরই স্বেচ্ছাচারিতা করছে। অধিকাংশ শিক্ষার্থী নিম্ব মধ্যবিত্ত পরিবার থেকে ওঠে আসা।

শিক্ষার্থীরা ক্ষুধা নিবারনের জন্যই পুষ্টিহীন ডাইনিংয়ের খাবার খেয়ে থাকে। দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতিতে শিক্ষার্থীদের যখন নাভিশ্বাস উঠে গেছে, সেখানে এমন সিদ্ধান্ত মড়ার উপর খাড়ার ঘাঁ।’

ইতিহাস বিভাগের শিক্ষার্থী মাসুদ ইসলাম বলেন, প্রতিবার খাবারের মান বৃদ্ধি ও দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির কথা বলে দাম বাড়ানো হয়। তবে এতে খাবারের মানের কোনো পরিবর্তন হয় না। আর বিশ্ববিদ্যালয়ের সব কিছু আমাদের স্বার্থে হওয়ার কথা। কিন্তু সেটি না করে প্রশাসন শিক্ষার্থীদের ওপর সবকিছু চাপিয়ে দেয়।

আরও পড়ুনঃ এমপি সাকিবের শপথ 

নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক এক শিক্ষার্থী বলেন, ‘প্রশাসন শিক্ষার্থীদের কথা ন্যূনতম চিন্তা না করে খাবারের দাম বৃদ্ধি করেছে। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের উচিত সার্বিক বাজেট থেকে আবাসিক হলের খাবারে ভর্তুকি দেওয়া।’

জানতে চাইলে হল প্রাধ্যক্ষ পরিষদের আহ্বায়ক অধ্যাপক জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, ‘দ্রব্যমূল্যের দাম বৃদ্ধির ফলে ডাইনিং কর্মচারীরা ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে ডাইনিং পরিচালনা করছেন। তারা অনেকদিন ধরে খাবারের দাম বৃদ্ধির দাবি জানিয়ে আসছিলেন। তাদের কথা চিন্তা করে দুবেলা খাবারে ১০ টাকা বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তবে শর্ত হচ্ছে খাবারের মান অবশ্যই বৃদ্ধি করতে হবে।’

বিশবিদ্যালয়ের সহ-উপাচার্য অধ্যাপক মো. সুলতান-উল-ইসলাম বলেন, ‘দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির ফলে প্রাধ্যক্ষ পরিষদ এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তবে এ সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের আগে শিক্ষার্থী, ডাইনিং কর্মচারী ও প্রাধ্যক্ষদের ত্রিপক্ষীয় আলোচনা করে নেওয়া দরকার ছিল। শিক্ষার্থীদের ওপর জোর করে কোনো কিছু যেন চাপিয়ে না দেওয়া হয়। বিষয়টি প্রাধ্যক্ষ পরিষদের আহ্বায়ক বলা হয়েছে। আর ডাইনিংয়ে ভর্তুকি দেওয়ার কোনো বাজেট নেই। ইউজিসিকে বারবার বলার পরেও তারা এই খাতে বরাদ্দ দিচ্ছে না।

Spread the love
Link Copied !!