বিজ্ঞপ্তি :

সাংবাদিক নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি 2023 :- বহির্বিশ্ব সহ বাংলাদেশের সকল বিভাগ, জেলা, উপজেলা এবং বিশ্ববিদ্যালয় (আসন শূন্য থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আবেদনের যোগ্যতা :- বয়স:- সর্বনিম্ন ২০ বছর হতে হবে। শিক্ষাগত যোগ্যতা:- আবেদনকারীকে সর্বনিন্ম এইচএসসি পাশ হতে হবে। কমপক্ষে ১ বছরে অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। (তবে বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধিদের ক্ষেত্রে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষার্থী হতে হবে অথবা কমপক্ষে ১ বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।) অতিরিক্ত যোগ্যতা:- স্মার্ট ফোন থাকতে হবে। নিজেদের প্রকাশিত নিউজ অবশ্যই নিজে ফেসবুকে শেয়ার করতে হবে একই সঙ্গে বিভিন্ন সামাজিক মাধ্যমে প্রচার করতে হবে। এছাড়াও প্রতিদিন অন্তত ০৩ টি নিউজ শেয়ার করতে হবে। (বাধ্যতামূলক) অবশ্যই অফিস থেকে দেয়া এ্যাসাইনমেন্ট সম্পন্ন করতে হবে। নিউজের ছবি এবং নিউজের সঙ্গে ভিডিও পাঠাতে হবে ( ছবি কপি করা যাবে না কপি করলে তা উল্লেখ করতে হবে)। বেতন ভাতা :- মাসিক বেতন ও বিজ্ঞাপনের কমিশন আলোচনা সাপেক্ষে। আবেদন করতে আপনাকে যা করতে হবে :- আমাদের ই-মেইলের ঠিকানায় ছবিসহ জীবন বৃত্তান্ত (Cv), সিভির সঙ্গে জাতীয় পরিচয়পত্র এর কপি, সর্ব্বোচ্চ শিক্ষাগত সনদ এর কপি, পাসপোর্ট সাইজের ছবি, অভিজ্ঞতা থাকলে প্রমাণ স্বরুপ তথ্য প্রেরণ করতে হবে । মনে রাখবেন :- সিভি অবশ্যই নিজের ব্যক্তিগত মেইল থেকে পাঠাতে হবে। কারণ যে মেইল থেকে সিভি পাঠাবেন অফিস থেকে সেই মেইলেই রিপ্লাই দেওয়া হবে। ই–মেইল পাঠাতে বিষয় বস্তু অর্থাৎ Subject–এ লিখতে হবে কোন জেলা/ উপজেলা/ ক্যাম্পাস প্রতিনিধি। আমাদের সাথে যোগাযোগের ঠিকানা :- Email:- bondhantv@gmail.com টেলিফোন:- +8809638788837, +8801911040586 (Whatsapp), সকাল ৯টা থেকে রাত ১১.৫৯ পর্যন্ত। আমাদের নিয়োগ পদ্ধতি :- প্রথমে আপনার কাগজ যাচাই বাছাই করা হবে। আপনি প্রাথমিক ভাবে চুড়ান্ত হলে সেটি সম্পাদকের কাছে প্রেরণ করা হবে। সর্বশেষ সম্পাদক কর্তৃক চুড়ান্ত হলে আপনার সাথে যোগাযোগ করা হবে মোবাইল এবং ইমেল এর মাধ্যমে। আপনাকে আমাদের ট্রেনিং এবং অবজারভেশন ফেসবুক গ্রুপে এড করা হবে। তারপর আপনাকে ৫ দিন নিউজ পাঠাতে বলা হবে। এর পর চুড়ান্ত নিয়োগের ১ মাসের মধ্যে আপনার কার্ড প্রেরণ করা হবে। নিউজ পাঠানোর মাধ্যম:- আমাদের মেইল আইডি, মেসেঞ্জার গ্রুপ, ইউজার আইডির মাধ্যমে পাঠাতে পারবেন। নিউজ অবশ্যই ইউনিকোড ফরমেটে পাঠাতে হবে। নিউজের সাথে ছবি থাকলে তা পাঠাতে হবে। নিউজের যদি কোন তথ্য প্রমাণ থাকে তবে তা প্রেরণ করতে হবে। বি:দ্র: সকল শর্ত পরিবর্তন, পরিমার্জন এবং বর্ধিত করনের অধিকার কর্তৃপক্ষের কাছে সংরক্ষিত। মন্তব্য: BondhanTv – বন্ধন টিভি আমাদের নিজস্ব আয়ে চ্যানেলটি পরিচালিত হয়। আমরা কোন গ্রুপ বা কোম্পানির অর্থ বা কোন স্পন্সরের অর্থদ্বারা পরিচালিত নয়।

জয় বাংলা ইয়ুথ অ্যাওয়ার্ডে আজীবন সম্মাননা পেলো ‘উন্মাদ’ ও ইয়াংগুয়াং ম্রো


বন্ধন টিভি ডেস্ক
প্রকাশের সময় : নভেম্বর ১২, ২০২২, ৮:২৯ অপরাহ্ণ
জয় বাংলা ইয়ুথ অ্যাওয়ার্ডে আজীবন সম্মাননা পেলো ‘উন্মাদ’ ও ইয়াংগুয়াং ম্রো

জয় বাংলা ইয়ুথ অ্যাওয়ার্ডে ষষ্ঠ আসরে ‘পাথ ফাইন্ডার’ হিসেবে আজীবন সম্মাননা দেয়া হয়েছে ব্যঙ্গাত্মক ম্যাগাজিন ‘উন্মাদ’ এবং গবেষণার জন্য ইয়াংগুয়াং ম্রো’কে। সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশন (সিআরআই)-এর চেয়ারপার্সন সজীব ওয়াজেদ জয় ইয়াং বাংলার এই পুরস্কারটি তুলে দেন উন্মাদ ম্যাগাজিনের প্রধান সম্পাদক ও কার্টুনিস্ট আহসান হাবীব ও ইয়াংগুয়াং ম্রো’র হাতে।

বর্তমান সময়ে শুধু স্যাটায়ার ভিত্তিক উপমহাদেশের একমাত্র ম্যাগাজিন সম্ভবত ‘উন্মাদ’। ৪৫ বছর যাবৎ যেই ব্যঙ্গাত্মক (স্যাটায়ার) ম্যাগাজিন টিকে রয়েছে বাংলাদেশের বুকে। দেশের অধিকাংশ কার্টুনিস্টদের শুরু এই ম্যাগাজিন থেকে। দেশ ও জাতি গঠনে ভূমিকা রাখার জন্য এই ম্যাগাজিনটিকে সম্প্রতি দেয়া হয়েছে জয় বাংলা ইয়ুথ অ্যাওয়ার্ডের আজীবন সম্মাননা।

স্বাধীনতা উত্তর বাংলাদেশে একদিকে চলছিল চরম অস্থিরতা। অন্যদিকে তারুণ্যের মাঝে নতুন কিছু করার অদম্য উৎসাহ। এমনই এক সময়ে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) দুই তরুণ ইস্তিয়াক হোসেন ও কাজী খালিদ আশরাফ ১৯৭৮ সালে মে মাসে শুরু করেন ত্রৈমাসিক উন্মাদ। কার্টুন ও স্যাটায়ার ভিত্তিক এই ম্যাগাজিনে তাদের সহযোগিতা করেন সুলতানুল ইসলাম, নওশাদ নবী, সাইফুল হক ও ইলিয়াস খান। দ্বিতীয় সংখ্যায় যোগ দেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূগোল বিভাগের ছাত্র কার্টুনিস্ট আহসান হাবীব। এখান থেকে ভিন্ন এক যাত্রার শুরু। বাংলাদেশের রাজনীতি ও প্রেক্ষাপট নিয়ে বেশ তীর্যকভাবে নিজের অবস্থান জানিয়ে গেছে এই ম্যাগাজিন তার প্রতিষ্ঠা লগ্ন থেকে।

সমাজ গঠন ও জাতি গঠনে স্যাটায়ারের মাধ্যমে এক অনন্য অবদান রেখে গেছে এই ম্যাগাজিন। এরশাদ বিরোধী আন্দোলনেও বড় ভূমিকা ছিলো এই ম্যাগাজিনের। শুরুতে ত্রৈমাসিক হলেও খুব দ্রুতই এটি প্রতি মাসে প্রকাশিত হওয়া শুরু করে। তরুণদের মধ্যে দারুণ সাড়া ফেলে এই ম্যাগাজিন।

জয় বাংলা ইয়ুথ অ্যাওয়ার্ডের মঞ্চ থেকে বলা হয়, এটি শুধু একটি ম্যাগাজিন নয়। এক ঝাঁক তরুণকে কার্টুনিস্ট হওয়ার ক্ষেত্রে অনুপ্রেরণা দিয়ে গেছে উন্মাদ। উন্মাদ ম্যাগাজিনের প্রধান সম্পাদক ও কার্টুনিস্ট আহসান হাবীব বলেন, ৪৫ বছর পর এমন একটি অ্যাওয়ার্ড আমাদের কার্টুনিস্টদের অনুপ্রেরণা দিয়েছে। আমাদের উন্মাদের কার্টুনিস্টরাই এঁকেছে গ্রাফিক নভেল মুজিব। বিষয়টি গর্বের এই পুরষ্কার দেয়ায় সিআরআই ও ইয়াং বাংলাকে ধন্যবাদ জানান তিনি।

মাসিক এই ব্যঙ্গাত্মক (স্যাটায়ার) ম্যাগাজিনের প্রায় শুরু থেকেই পরিচালনা করেছেন আহসান হাবীব। ১৯৮০-র দশকে সামরিক শাসনামলে রাজনৈতিক কার্টুন প্রকাশ করায় ব্যাপক প্রতিক্রিয়ার শিকার হন তিনি। তবুও উন্মাদের ধার কমেনি এতটুকুও। এখনও কার্টুনিস্ট হতে চাওয়া তরুণদের জন্য উন্মাদ বিভিন্ন কর্মশালা আয়োজন করে। বর্তমানে ম্যাগাজিনের সঙ্গে সম্পৃক্ত ৫০ জনের বেশি সদস্য রয়েছেন।

আরও পড়ুন: শৈশবের স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে চান বাটলার

অন্যদিকে পার্বত্য চট্টগ্রামে দূরের অন্ধকারে এক আলোকরশ্মি ইয়াংগুয়াং ম্রো। লেখালেখি ও গবেষণাই তার কাজ। তিনি ম্রো সম্প্রদায়ের ভাষায় প্রথম বই ‘টোটং’ তৈরি করেন। ম্রো ভাষার প্রথম এই কথাসাহিত্যিক ‘ম্রো ফেয়ারি টেলস’ বই লিখেছেন। ২০১৩ সাল থেকে মাত্র ছয় ব্যক্তির কথ্য ভাষা ‘রেণমিতাচ্যা ভাষা’ সংরক্ষণে কাজ করেছেন তিনি। নিজের সম্প্রদায়ের মধ্যে মুক্তিযুদ্ধের মূল্যবোধ, অর্থ ও ভিত্তিকে ছড়িয়ে দিতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ ম্রো ভাষায় অনুবাদ করে প্রকাশ করেন তিনি। ম্রো ভাষা সংরক্ষণে তরুণদের উদ্বুদ্ধ করতে নিজের এলাকায় কুঁড়েঘর তৈরি করেছে মনে প্রাণে জুমচাষ করা এই ব্যক্তি।

তিনি ইয়াং বাংলা এবং সিআরআইকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, ‘আমার বেড়ে ওঠা দুর্গম এলাকায়, যেখানে আমরা বাংলা ভাষা জানতাম না। আমরা যখন ছোট ছিলাম তখন মা-বাবা, গ্রামের বয়স্করা গল্প শোনাতেন এবং বলতেন। এগুলো সংরক্ষণ ও রক্ষা করতে হয়। একই সঙ্গে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে বঙ্গবন্ধু কি অবদান রেখে গেছেন তাও নিজ ভাষায় লেখার চেষ্টা করেছি।

Spread the love
Link Copied !!