বিজ্ঞপ্তি :

সাংবাদিক নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি 2023 :- বহির্বিশ্ব সহ বাংলাদেশের সকল বিভাগ, জেলা, উপজেলা এবং বিশ্ববিদ্যালয় (আসন শূন্য থাকা সাপেক্ষে) প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আবেদনের যোগ্যতা :- বয়স:- সর্বনিম্ন ২০ বছর হতে হবে। শিক্ষাগত যোগ্যতা:- আবেদনকারীকে সর্বনিন্ম এইচএসসি পাশ হতে হবে। কমপক্ষে ১ বছরে অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। (তবে বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধিদের ক্ষেত্রে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষার্থী হতে হবে অথবা কমপক্ষে ১ বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।) অতিরিক্ত যোগ্যতা:- স্মার্ট ফোন থাকতে হবে। নিজেদের প্রকাশিত নিউজ অবশ্যই নিজে ফেসবুকে শেয়ার করতে হবে একই সঙ্গে বিভিন্ন সামাজিক মাধ্যমে প্রচার করতে হবে। এছাড়াও প্রতিদিন অন্তত ০৩ টি নিউজ শেয়ার করতে হবে। (বাধ্যতামূলক) অবশ্যই অফিস থেকে দেয়া এ্যাসাইনমেন্ট সম্পন্ন করতে হবে। নিউজের ছবি এবং নিউজের সঙ্গে ভিডিও পাঠাতে হবে ( ছবি কপি করা যাবে না কপি করলে তা উল্লেখ করতে হবে)। বেতন ভাতা :- মাসিক বেতন ও বিজ্ঞাপনের কমিশন আলোচনা সাপেক্ষে। আবেদন করতে আপনাকে যা করতে হবে :- আমাদের ই-মেইলের ঠিকানায় ছবিসহ জীবন বৃত্তান্ত (Cv), সিভির সঙ্গে জাতীয় পরিচয়পত্র এর কপি, সর্ব্বোচ্চ শিক্ষাগত সনদ এর কপি, পাসপোর্ট সাইজের ছবি, অভিজ্ঞতা থাকলে প্রমাণ স্বরুপ তথ্য প্রেরণ করতে হবে । মনে রাখবেন :- সিভি অবশ্যই নিজের ব্যক্তিগত মেইল থেকে পাঠাতে হবে। কারণ যে মেইল থেকে সিভি পাঠাবেন অফিস থেকে সেই মেইলেই রিপ্লাই দেওয়া হবে। ই–মেইল পাঠাতে বিষয় বস্তু অর্থাৎ Subject–এ লিখতে হবে কোন জেলা/ উপজেলা/ ক্যাম্পাস প্রতিনিধি। আমাদের সাথে যোগাযোগের ঠিকানা :- Email:- bondhantv@gmail.com টেলিফোন:- +8809638788837, +8801911040586 (Whatsapp), সকাল ৯টা থেকে রাত ১১.৫৯ পর্যন্ত। আমাদের নিয়োগ পদ্ধতি :- প্রথমে আপনার কাগজ যাচাই বাছাই করা হবে। আপনি প্রাথমিক ভাবে চুড়ান্ত হলে সেটি সম্পাদকের কাছে প্রেরণ করা হবে। সর্বশেষ সম্পাদক কর্তৃক চুড়ান্ত হলে আপনার সাথে যোগাযোগ করা হবে মোবাইল এবং ইমেল এর মাধ্যমে। আপনাকে আমাদের ট্রেনিং এবং অবজারভেশন ফেসবুক গ্রুপে এড করা হবে। তারপর আপনাকে ৫ দিন নিউজ পাঠাতে বলা হবে। এর পর চুড়ান্ত নিয়োগের ১ মাসের মধ্যে আপনার কার্ড প্রেরণ করা হবে। নিউজ পাঠানোর মাধ্যম:- আমাদের মেইল আইডি, মেসেঞ্জার গ্রুপ, ইউজার আইডির মাধ্যমে পাঠাতে পারবেন। নিউজ অবশ্যই ইউনিকোড ফরমেটে পাঠাতে হবে। নিউজের সাথে ছবি থাকলে তা পাঠাতে হবে। নিউজের যদি কোন তথ্য প্রমাণ থাকে তবে তা প্রেরণ করতে হবে। বি:দ্র: সকল শর্ত পরিবর্তন, পরিমার্জন এবং বর্ধিত করনের অধিকার কর্তৃপক্ষের কাছে সংরক্ষিত। মন্তব্য: BondhanTv – বন্ধন টিভি আমাদের নিজস্ব আয়ে চ্যানেলটি পরিচালিত হয়। আমরা কোন গ্রুপ বা কোম্পানির অর্থ বা কোন স্পন্সরের অর্থদ্বারা পরিচালিত নয়।

কুমিল্লায় ব্যাপকভাবে সরিষা চাষ করা হয়েছে।


ইসরাত জাহান
প্রকাশের সময় : ফেব্রুয়ারি ৬, ২০২৪, ১২:১১ অপরাহ্ণ
কুমিল্লায় ব্যাপকভাবে সরিষা চাষ করা হয়েছে।

কুমিল্লায় ব্যাপকভাবে সরিষা চাষ করা হয়েছে। কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার বাইশটি ইউনিয়নে প্রতিটি গ্রামে সরিষার অবাদ করছে স্থানীয় কৃষকরা। যদি অনুকূলে আবহাওয়ার থাকে তাহলে সরিষার ফলন গত বছরের চেয়ে বেশি হবে বলে আশা করছেন কৃষকরা।

তারা সরিষা ঘরে তুললেই ধান চাষের জন্য জমি তৈরি করতে শুরু করবে এখন এসব এলাকায় চাষিরা সরিষার পরিচর্যা নিয়ে ব্যাপক সময় পার করছেন। জমি থেকে পাকা সরিষা সংগ্রহ করতে পারলেই কৃষকদের চিন্তা দূর হবে।
চলতি মৌসুমে পুরো উপজেলায় প্রায় ৯ হাজার ৫২ হেক্টর জমিতে আবাদ হয়েছে সরিষার। কৃষকের পছন্দ অনুযায়ী বিভিন্ন জাতের সরিষার আবাদ হলেও বারি ১৪-১৫-১৭-১৮ বিনা ৪-৯-১১সহ কয়েক জাতের সরিষার আবাদ হয়েছে সবচেয়ে বেশি।

উপজেলার রামচন্দ্রপুর উওর ইউনিয়নের বি-চাপিতলা কৃষক মফিজ মিয়া কামাল্লা ইউনিয়নের হাসানপুর গ্রামের কৃষক হোসেন মিয়া যাত্রাপুর ইউনিয়নের মোচাগড়া গ্রামের কৃষক আদম আলী, শ্রীকাইল ইউনিয়নের পেন্নুই গ্রামের রফিক মিয়া, আন্দি কোট ইউনিয়নের দেওরা গ্রামের করিম মিয়া বাসসকে জানান, জমি তৈরির করা থেকে ফলন গড়ে তোলা পর্যন্ত প্রায় এক বিঘা প্রতি জমিতে সরিষা আমাদের খরচ হয়েছে ৫ থেকে ৬ হাজার টাকা।

যদি আবহাওয়া অনুকূলে থাকে তাহলে এসব জমি থেকে এক বিঘাপ্রতি প্রায় ৫ মণ থেকে ৬ মণ সরিষার ফলন পাবেন বলে আশা করছেন তারা। তবে এবার বাজার দর বেশি পাওয়ার আশা করেছেন অনেকেই। একাধিক কৃষক বাসসকে জানান, অন্যান্য ফসলের মত সরিষা আবাদে তেমন শ্রমের প্রয়োজন হয় না। জমি থেকে পাকা সরিষা সংগ্রহ ও মারাই করে ফসল ঘরে তোলার জন্য পরিবারের পুরুষের পাশাপাশি নারী বৃদ্ধ ও শিশু সদস্যরা নিয়মিতভাবে কাজ করেন।

আরও পড়ুনঃ ঝালকাঠিতে ১৪ ভরি স্বর্ণালংকার ও ২ লক্ষ ২০ হাজার টাকা ডাকাতি

 

মুরাদনগর সদর ইউনিয়নের সোনাপুর গ্রামের কৃষক আলমগীর হোসেন বাসসকে বলেন, অল্প খরচ ও স্বল্প সময়ে সরিষার ফলন ঘরে তোলা যায়। ঝড়-বৃষ্টি না হওয়ার চলতি মৌসুমে সরিষার ফলনও হয়েছে বেশ। সরিষার বর্তমান বাজারদর পায় মণ ২হাজার থেকে ৩ হাজার টাকা তিনি আরো বলেন রোদে শুকিয়ে গুদামজাত করে পরে বিক্রি করতে পারলে সরিষার বাজার দর আরো বেশি পাওয়া যাবে বলে জানান তিনি। কিন্তু অভাবের তাড়নায় ফসল ঘরে তোলার পরই বিক্রি করে দিতে হয়।

মুরাদনগর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা পাভেল খাঁন পাপ্পু বাসসকে বলেন, চলতি বছরে উপজেলায় প্রায় ৯ হাজার ৫২ হেক্টর জমিতে সরিষা চাষ করা হয়েছে। চলতি মৌসুমে আবহাওয়া ভালো থাকায় সরিষার বাম্পার ফলন হয়েছে পুরো উপজেলা। গত মৌসুমের তুলনায় এবার ৫% বেশি সরিষার আবাদ হয়েছে বিঘা প্রতি পাঁচ হাজার আটশ’ বিশ টাকা খরচ করে প্রায় ৫ মণ করে সরিষার ফলন পাবেন চাষিরা। অল্প খরচে ভালো লাভবান হয়ে থাকবেন এ উপজেলার বিভিন্ন এলাকা সরিষা চাষিরা।

Spread the love
Link Copied !!